News

আইআইইউসিতে দাওয়াহ এডু-কালচারাল উইক’ সম্পন্ন

আইআইইউসিতে দাওয়াহ এডু-কালচারাল উইক’ সম্পন্ন

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (আইআইইউসি) দাওয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের আয়োজনে ‘দাওয়াহ এডু-কালচারাল উইক-২২’ সম্পন্ন হয়েছে।

সফট স্কিলস ডেভেলপমেন্টের অংশ হিসেবে ২০ মার্চ থেকে ৩০ মার্চ পর্যন্ত দাওয়াহ বিভাগের এ আয়োজনে শিক্ষার্থীরা স্বতন্ত্রভাবে কুরআন তিলাওয়াত, নাশিদ, দেশাত্মবোধক গান, কবিতা আবৃত্তি, উপস্থিত বক্তৃতা (আরবি, ইংরেজি, বাংলা), উপস্থিত আরবি ও ইংরেজি অনুবাদ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন।

বুধবার (৩০ মার্চ) এডু কালচারাল উইক-২২ এর সমাপনী দিনে সেমিনার ও লেখক আড্ডা প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়। ফিমেল অ্যাকাডেমিক জোনে ‘সায়েন্টিফিক আইডেন্টিটি অব দ্যা কুরআনিক টার্ম উলুল আলবাব: অ্যান ওভারভিউ’ শীর্ষক সেমিনারে খ্যাতিমান লেখক ও গবেষক, লন্ডনস্থ একাডেমি-২১ এর এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান জিয়াউল হক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য ও ফিমেল একাডেমিক জোনের চেয়ারম্যান মিসেস রিজিয়া রেজা চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে শরীয়াহ অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. শাকের আলম শওক্ব উপস্থিত ছিলেন। পঠিত প্রবন্ধের ওপর আলোচনা করেন কুরআনিক সায়েন্স বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ মঈন উদ্দিন।
বিভাগীয় চেয়ারম্যান আ.ফ.ম নুরুজ্জামানের সভাপতিত্বে সেমিনার সঞ্চালনা করেন সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আমিনুল হক ও প্রভাষিকা জাকিয়া বিনতে আলম। সেমিনারে শিক্ষকদের মধ্যে শোয়াইব উদ্দিন মাক্কী, উম্মে সায়মা তাজকিয়া, সাইয়্যেদ নূর, সালমা বিনতে শফিক ও মুসলিম হায়দার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রবন্ধকার জিয়াউল হক তার উপস্থাপিত প্রবন্ধে কুরআনে বর্ণিত ‘উলুল আলবাব’ এর সায়েন্টিফিক ব্যাখ্যা করেন এবং বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণের মাধ্যমে হিউম্যান ব্রেইনের স্থিতিশীলতা ও মনস্তাত্ত্বিক বিকাশের ওপর বিশদভাবে আলোচনা করেন।

সদ্যাবিস্কৃত বৈজ্ঞানিক তথ্য বিশ্লেষণ ক্রমে তিনি দেখান, নিয়মিত সিজদাহ, ভোরের কুরআন তিলাওয়াত, যথাসময়ে পরিমিত ঘুম এবং স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলার মাধ্যমে মানব মস্তিষ্কে মূল প্রভাবক ‘গামা ওয়েব বৈদ্যুতিক তরঙ্গ’কে কার্যক্ষম করে তোলা যায়। যার ফলে মানুষের চিন্তায় গুণগত পরিবর্তন সূচিত হয়ে জটিল গবেষণা ও বিশ্লেষণী ক্ষমতা তৈরি হয়।

প্রবন্ধকার মানুষের বিচক্ষণতা, বুদ্ধিমত্তা ও স্মৃতি ক্ষমতার মূল নিয়ন্ত্রক ‘সিঙ্গুলেট জাইরাস’ নামক ব্রেইনের বিশেষ অংশের কার্যকারিতা নিয়ে চমকপ্রদ ও বিস্ময়কর তথ্য উপস্থাপন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে দাওয়াহ বিভাগের ব্যতিক্রমধর্মী সেমিনারের ভূয়সী প্রশংসা করে মিসেস রিজিয়া রেজা চৌধুরী বলেন, জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে দাওয়াহ বিভাগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

তিনি আরও বলেন, জ্ঞান-বিজ্ঞানের উচ্চ শিখরে পৌছতে হলে কুরআনের আলোকে ব্যাপক গবেষণা জরুরি। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদেরকে বেশি বেশি জ্ঞান চর্চায় আত্মনিয়োগ করার ওপর ও গুরুত্বারোপ করেন। এই ধরনের উপকারী সেমিনার আরও বিস্তৃত কলেবরে আয়োজনের মাধ্যমে সবার মাঝে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দেয়ার জন্য দাওয়াহ বিভাগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

দাওয়াহ বিভাগের ছাত্রদের জন্য দুপুর ১২ টায় ‘আড্ডা উইথ রাইটার’ প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়। ঘণ্টাব্যাপী ওই প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীরা প্রধান অতিথি জিয়াউল হক এর সাথে লেখালেখি নিয়ে প্রাণবন্ত আড্ডায় মেতে উঠে। লেখালেখি বিষয়ে ছাত্রদের সাথে প্রশ্নোত্তর পর্বটিও ছিল বেশ জমজমাট। প্রাণবন্ত এই আড্ডা শেষে বিভাগীয়

চেয়ারম্যান আ.ফ.ম নুরুজ্জামান সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সপ্তাহব্যাপী “দা‘ওয়াহ এডু-কালচারাল উইক-২২”প্রোগ্রামের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Recent News