ICBIID 2019

আইআইইউসি’র একুশ উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রফেসর গোলাম মহিউদ্দীন

বঙ্গবন্ধু একুশের চেতনাকে উচ্চশিক্ষা অর্জনের হাতিয়ার হিসাবে দেখেছিলেন

বঙ্গবন্ধু একুশের চেতনাকে উচ্চশিক্ষা  অর্জনের হাতিয়ার হিসাবে দেখেছিলেন

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু একুশের চেতনাকে উচ্চশিক্ষা অর্জনের হাতিয়ার হিসাবে দেখেছিলেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি মাত্র ভাষার দেশ, আর তা হলো বাংলা, সেদিক থেকে আমরা গর্বিত জাতি। ভাষা আন্দোলনের পুরোধা সংগঠন তমুদ্দুন মজলিশের সভাপতি প্রিন্সিপাল এবং একুশের প্রথম কবিতার রচয়িতা মাহবুবুল আলম চৌধুরী এই চট্টগ্রামেরই কৃতী সন্তান। তিনি আরও বলেন, মহান একুশ আমাদের গৌরবের একটি উজ্জ্বলতম অধ্যায়। বাংলা ভাষায় কথা বলার অধিকার হরণের কারণেই মহান ভাষা আন্দোলন হয়েছিল। জাতীয় ইতিহাসে এটি একটি বড় অর্জন্।

আজ বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর দিনব্যাপী অমর একুশে কর্মসূচী ১৯ এর আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন এসব কথা বলেন। আইআইইউসি’র প্রো ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদীর সভাপতিত্বে অনুিষ্ঠত দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আলোচনা পর্বে অংশগ্রহণ করেন আইআইইউসি’র ট্রেজারার প্রফেসর ড. আবদুল হামিদ চৌধুরী, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসেন, রেজিস্ট্রার কর্নেল মোহাম্মদ কাসেম, পিএসসি (অব:), প্রক্টর ড. মোহাম্মদ কাউসার আহমেদ, হল প্রভোস্ট সিরাজুল ইসলাম এবং ইকনোমিক্স এন্ড ব্যাংকিং (ইবি) বিভাগের চেয়ারম্যান মো: শরীফুল হক। ছাত্রদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন বিবিএ’র আরিফ আবদল্লাহ এবং ইবি’র ছাত্র দোলন দাশ। স্বাগতঃ বক্তব্য রাখেন, স্টুডেন্ট এ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন স্টুডেন্ট এ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের অতিরিক্ত পরিচালক কবি চৌধুরী গোলাম মাওলা। অনুষ্ঠানে আবৃত্তি পরিবেশন করেন, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোঃ এমদাদ হোসেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দীন বলেন, দেশকে সাংস্কৃতিক আগ্রাসন থেকে নিরাপদ করতে আমাদেরকে নিজস্ব সংস্কৃতির লালন ও চর্চা করতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের ভাষা ও সংস্কৃতির মর্যাদা রক্ষায় আবেগের চেয়ে আন্তরিকতা বেশি প্রয়োজন।
নির্ধারিত আলোচকগণ তাদের বক্তব্যে বলেন, নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতির উপর আঘাত কেউ মেনে নিতে পারেনা। আমরা সংগ্রামী জাতি, আমরাও পারি নি। কিন্তু বাংলা ভাষার যথাযথ চর্চা আমরা এখনও নিশ্চিত করতে পারি নি। মাতৃভাষা চর্চায় যতœশীল হলে অন্য ভাষার ব্যবহারেও আমরা সচেতন হবো। অন্ধ অনুকরণ করতে গিয়ে আমরা আমাদের জাতিসত্তাকে অসম্মান করছি বলে তিনি উল্লেখ করেন। বক্তারা বলেন ভাষার অপব্যবহার আমাদেরকে অনেক ক্ষেত্রে হাসির পাত্রে পরিণত করে।
সভাপতির বক্তব্যে আইআইইউসি’র প্রো ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদ বলেন, প্রত্যেক জাতির কাছে তার মাতৃভাষার মর্যাদা অনেক বেশি। তিনি বলেন, বাংলার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হল এর ভাষা বৈদিক। বংলা ভাষা আল্লাহর সেরা দান।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল কুমিরায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একুশের প্রথম প্রহরে নিজস্ব শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ২১ ফেব্রুয়ারী সকালে শোভাযাত্রা, সকাল দশটায় আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শহীদদের স্মরণে দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন সেনার্ক এর সহযোগী অধ্যাপক ড. মোয়াজ্জেম হোসাইন।

Recent News